বস্তুজগত বিজ্ঞানের সূত্র দ্বারা নিয়ন্ত্রিত, আমাদের শরীর স্থান-কালে অবস্থিত এ বস্তুজগতের অংশ। সুতরাং সূক্ষভাবে বলতে গেলে আমাদের স্বাধীন ইচ্ছা বলে কিছু নেই। কান্টের মতে বস্তু যেমন আছে (থিং ইন ইটসেলফ) তেমনভাবে জানা আমাদের পক্ষে অসম্ভব। অর্থাৎ মানুষের পক্ষে বস্তুর প্রত্যক্ষ জ্ঞান অসম্ভব। জ্ঞানের কতগুলো সূত্রের মাধ্যমে মানুষ বস্তুকে জানতে পারে। এ সূত্রগুলো মানুষ অভিজ্ঞতা-পূর্বরূপে লাভ করে। স্থান-কাল,সম্পর্ক,কার্য-কারণ, অনন্যতা ইত্যাদি মানুষের জ্ঞানসূত্র। পদার্থবিজ্ঞানী আইনস্টাইনের উপরে কান্টের বিশাল প্রভাব ছিল, স্থান-কাল নিয়ে তার দর্শন আইনস্টাইনকে আপেক্ষিকতা তত্ত্ব গঠনে বিশেষভাবে প্রভাবিত করে।

সম্পূর্ণ পোস্ট পড়ুন